paper

ব্যবসা সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নিল পেপার প্রসেসিং

ব্যবসা সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নিল পেপার প্রসেসিং

নিজস্ব প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি পেপার প্রসেসিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড ব্যবসা সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

কোম্পানিটির বোর্ড সভায় ব্যবসা সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

আলোচ্য ব্যবসা সম্প্রসারণের মধ্যে রয়েছে প্যাকেজিং পেপার উৎপাদন, প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, পেপার কনভার্টিং, হাউজিং ও রিয়েল এস্টেট, অবকাঠামো উন্নয়ন, স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক টেন্ডার, আমদানি ও রপ্তানি এবং ট্রেডিং ব্যাবসা।

কোম্পানিটির বোর্ড সভায় উপস্থিত ছিলেন- পরিচালক মো. মোবারক হোসেন, সচিব মো.মোস্তাফিজ রহমান, চেয়ারম্যান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

সূত্রঃ শেয়ারনিউজ

desco_logo

BSEC allows Desco to issue 60.76 crore preference share

The Bangladesh Securities and Exchange Commission (BSEC) has allowed state-owned power distributor Dhaka Electric Supply Company (Desco) Limited to issue 60.76 crore preference shares at Tk10 each to the government against a share money deposit.

The commission approved this in its meeting on Sunday.

According to its financial statement till June 2023, Desco received Tk607.69 crore from the government as a share money deposit for its annual development plan. Against this fund, the company will now issue irredeemable non-cumulative preference shares in favour of the secretary of the Power Division under the Ministry of Power, Energy, and Mineral Resources.

On 2 March 2020, the Financial Reporting Council (FRC) directed that capital received as a share money deposit, or by any other name, should be included in the equity part of a company. This amount cannot be refunded and must be converted into share capital within six months from the date of receipt.

Such share money deposits shall also be considered in the calculation of earnings per share (EPS).

Desco decided to issue preference shares after more than three years of the FRC directive.

Preference shares are a type of company stock with dividends paid to shareholders before ordinary shareholders. In case of bankruptcy, preference shareholders have priority in receiving payment from company assets before common stockholders.

The irredeemable nature of these preference shares means they will not increase Desco’s paid-up or common share capital. Consequently, the company is not obligated to pay any previous year’s unpaid preference share dividends due to the “non-cumulative” nature of the shares.

The proposed conditions imply that if Desco makes more profits, the government will get high dividends against the preference shares and in cases of annual losses no dividends will be given.

As the new shares will not be taken into account for EPS calculation, there will be no direct impact on the company’s financials.

But because of getting priority in dividend payments, the government as a preference shareholder will first receive a portion of the company’s earnings as a dividend, which might ultimately decrease the net profit.

 

Source: The Business Standard

rupali_bank_limited

Rupali Bank recommends 5% stock dividend

Owing to the failure to pay or declare dividends for its shareholders, the Dhaka Stock Exchange (DSE) downgraded the bank to the Z category from the B category on 2 May

Rupali Bank PLC has now decided to pay its shareholders a 5% stock dividend for 2023.

The decision came after its board of directors held a meeting on Saturday (8 June).

A month ago on 2 May, the bank decided not to pay any dividends for 2023 despite a 121% growth in its earnings per share (EPS) to Tk1.35 for 2023.

In 2022, the bank also did not pay dividends to its shareholders.

Owing to the failure to pay or declare dividends for its shareholders, the Dhaka Stock Exchange (DSE) downgraded the bank to the Z category from the B category on 2 May.

In price-sensitive information (PSI) on Saturday, the bank said the board of directors reviewed the earlier declared dividend, and the board declared a 5% stock dividend for 2023, which is subject to the approval of the Bangladesh Securities and Exchange Commission (BSEC).

 

Source: The Business Standard

paper-processing-and-packaging-ltd--600

ব্যবসা বাড়াবে পেপার প্রসেসিং

ব্যবসা বাড়াবে পেপার প্রসেসিং

নিজস্ব প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি পেপার প্রসেসিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেডের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (০৫ জুন) কোম্পানি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সভায় কোম্পানিটির ব্যবসায়িক কার্যক্রম বহুমুখীকরণের মাধ্যমে ব্যবসার পরিধি বিস্তৃত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সম্প্রসারিত ব্যবসায়িক কার্যক্রমের মধ্যে প্যাকেজিং পেপার উৎপাদন, প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, পেপার কনভার্টিং, হাউজিং ও রিয়েল এস্টেট, অবকাঠামো উন্নয়ন, স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক টেন্ডার, আমদানি ও রপ্তানি এবং ট্রেডিং ব্যবসা অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে।

সূত্রঃ শেয়ারনিউজ

p7-infograph_bkash-posts-growth-in-profit

bKash generates Tk70cr profit in March quarter

The steady increase in profits can be attributed to the fintech company’s strategic expansion of services, enhanced user experience, and a growing customer base, according to its officials.

Infographics: TBS

Infographics: TBS

The country’s leading mobile financial service (MFS) provider bKash has generated Tk70 crore in profit in the first quarter, marking 95% year-on-year growth.

The steady increase in profits can be attributed to the fintech company’s strategic expansion of services, enhanced user experience, and a growing customer base, according to its officials.

They added that it has successfully leveraged technological innovations to streamline operations and offer a diverse range of financial products, from mobile payments to micro-savings and loans.

Moinuddin Mohammed Rahgir, chief financial officer (CFO) of bKash, told The Business Standard, “During the early stages, customer-centric fintech companies like bKash with a sustainable business model needed patient capital and a growth mindset. It was a prerequisite to invest in the expansion of technological capabilities, infrastructure, digital literacy, and awareness.”

“bKash remains a textbook example of a company pursuing growth, including the expansion of its service platform, customer acquisition, and maintaining its agent network. Now, steady returns on those investments are bringing revenue growth,” he added.

In the January-March quarter of 2024, the company’s operating profit also jumped over 500% to reach Tk76.22 crore. Besides, its revenue grew by 24%, reaching Tk1,214 crore, compared to the equivalent period of last year.

Meanwhile, the robust growth in profit helped bKash – also a subsidiary of BRAC Bank – offset the accumulated loss after four years, posting Tk15.78 crore as retained earnings in the March quarter.

The financial service provider had been profitable until 2018 since its inception in 2011, but it suffered significant losses between 2019 and 2021.

BRAC Bank holds 51% shares of bKash, while Money in Motion LLC of the US owns 16.45%, Alipay Singapore E-Commerce 14.87%, International Finance Corporation 10.36%, and SVF II BEAM (DE) LLC 7.32% shares.

Source: The Business Standard
sss

গ্লোবাল ইকোনোমিক্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করলো এনার্জিপ্যাক

গ্লোবাল ইকোনোমিক্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন করলো এনার্জিপ্যাক

নিজস্ব প্রতিবেদক : গ্লোবাল ইকোনমিক্স অ্যাওয়ার্ড ২০২৪ জিতেছে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি। প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের একটি শীর্ষস্থানীয় পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি। ‘মোস্ট ইনোভেটিভ পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি– বাংলাদেশ’ এর স্বীকৃতি পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এর মাধ্যমে দেশের জন্য আরেকটি গৌরব বয়ে নিয়ে এলো এনার্জিপ্যাক।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উদ্ভাবনী কাজগুলো পরিচালনা করার লক্ষ্যে ১৯৮২ সাল থেকে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে এনার্জিপ্যাক।

জ্বালানির শক্তিকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে দেশকে সহায়তা করার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি এর সমস্ত কার্যক্রমে উদ্ভাবন নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করছে। প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ এই পুরস্কার অর্জন করলো এনার্জিপ্যাক।

এ বিষয়ে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও হুমায়ুন রশিদ বলেন, আমাদের প্রতিষ্ঠানের দলগত কাজের মানসিকতা ও গুণমান ধরে রাখার নিরন্তর প্রচেষ্টার স্বীকৃতি হিসেবে এই পুরস্কার পেয়ে আমরা সত্যিই আনন্দিত।

তিনি আরো বলেন, আমাদের প্রতি অব্যাহত সমর্থন ও আস্থা রাখায় আমাদের সহকর্মী ও অংশীদার সহ সবার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। ভবিষ্যতেও দেশে সাশ্রয়ী ও ক্লিন এনার্জি উৎপাদনে সক্ষমতা অর্জনে সহায়তা করার লক্ষ্য নিয়ে আমরা আমাদের উদ্ভাবন অব্যাহত রাখবো।

প্রসঙ্গত, স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক অর্থনীতিতে উন্নত কর্মসংস্কৃতি নিশ্চিতে অবদান রাখছে এমন সেরা প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বীকৃতি দেয় ‘গ্লোবাল ইকোনোমিক্স অ্যাওয়ার্ড’।

মূলত ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের আস্থা বাড়ানোর লক্ষ্যে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।

সূত্রঃ শেয়ারনিউজ

mir_akhter_hossain_limited

Mir Akhter Ltd wins contract to dredge Old Brahmaputra

Mir Akhter Hossain Limited has won a contract to dredge the Old Brahmaputra River from the Bangladesh Inland Water Transport Authority (BIWTA).

The construction company disclosed this through the Dhaka Stock Exchange (DSE) today.

According to the company’s statement, a joint venture between Mir Akhter and Confidence Infrastructure Limited obtained the dredging work under a BIWTA project for the improvement and restoration of navigability for the Old Brahmaputra, Dharala, Tulai, and Punarbhaba rivers.

Mir Akhter holds a 51% stake in the joint venture.

The total value of this project is Tk82.67 crore, with a project duration of 32 months.

Following this news, Mir Akhter shares rose by 1.94% to close at Tk36.70 yesterday at the DSE.

Mir Akhter has 33 projects worth Tk9,268 crore in hand, according to the company’s annual report for the fiscal year 2022-23.

Some of the notable projects currently underway include the Dhaka-Sylhet national highway, the development of Shah Amanat International Airport, the construction of a bridge over the Paira River, and numerous road projects across the country.

In its FY23 annual report, the company stated that the construction sector is benefiting from an increase in capital allocation from the government’s annual development budget. In April, Mir Akhter called an extraordinary general meeting on 25 June to secure shareholders’ approval for issuing a bond worth Tk300 crore.

Meanwhile, Mir Akhter reported that its revenue fell by 14% to Tk166.87 crore in July-March of the fiscal year 2023-24.

During this period, its net profit rose by 20% to Tk18 crore compared to the same period a year ago.

 

Source: The Business Standard

z

Rupali Bank’s profit jumps 29% in Jan-Mar

During the first quarter of 2024, its earnings per share was Tk0.49, which was Tk0.38 at the same time a year ago.

State owned Rupali Bank’s net profit jumped by 29% in the January-March of this year compared to the previous year, according to the bank’s financial statement disclosed today (1 June).

During the first quarter of 2024, its earnings per share was Tk0.49, which was Tk0.38 at the same time a year ago.

At the end of March, its net asset value per share stood at Tk36.07.

On Thursday, Rupali Bank shares closed 1.20% higher at Tk25.20 on the Dhaka Stock Exchange (DSE).

Earlier, in May, Rupali Bank was downgraded to the Z category in Dhaka bourse, as it failed to declare any dividends for two consecutive years.

The DSE downgraded the bank from its existing B category in line with the directive of the Bangladesh Securities and Exchange Commission issued on 15 February.

The bank decided not to pay any dividend to its shareholders for 2022 and 2023.

However, according to its financials, its consolidated earnings per share increased to Tk1.35 at the end of 31 December 2023, which was Tk0.61 in 2022.

In March, Rupali Bank received approval from the finance ministry to issue ordinary shares, against the share money deposits of Tk700 crore.

As per finance ministry officials, the issuance of ordinary shares priced at Tk15 each, comprising a Tk5 premium and Tk10 face value, has been approved.

The shares issuance is subject to approval of the Bangladesh Securities and Exchange Commission.

 

Source: The Business Standard

urop

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস ইউরোপীয় ইউনিয়নের

শেয়ারবাজারের উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস ইউরোপীয় ইউনিয়নের

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে অবস্থানরত ইউরোপীয় ইউনিয়নের দুই সদস্যের প্রতিনিধি দল বাংলাদেশের শেয়ারবাজারের উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে। বুধবার (২৯ মে) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু’র সঙ্গে বাংলাদেশে অবস্থানরত ইউরোপীয় ইউনিয়নের দুই সদস্যের প্রতিনিধিদল বৈঠক কালে এই আশ্বাস দেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, পরিসংখ্যান এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাবলিক ফাইন্যান্স ম্যানেজমেন্টের প্রকল্প কর্মকর্তা সমষ্টিক অর্থনৈতিক বিশ্লেষণ মি. মার্গা পিটার্স ও ইনক্লুসিভ গভর্নেন্সের টিম লিডার ফাস্ট সেক্রেটারি মিস এনরিকো লরেনজন।

ডিএসই কার্যালয়ে এ বৈঠকের সময় তার সঙ্গে ছিলেন ডিএসইর পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) সাত্বিক আহমেদ, প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা খাইরুল বাসার আবু তাহের মোহাম্মদসহ ডিএসইর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

বৈঠকে ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু বলেন, বাংলাদেশের শেয়ারবাজার একটি উদীয়মান শেয়ারবাজার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশের সাথে সঙ্গতি রেখে বর্তমান শেয়ারবাজারকে উন্নয়নের সাথে আরও বেশি সম্পৃক্ত করার বিষয়ে ভাবছেন।

তিনি বলেন, শেয়ারবাজারের মাধ্যমে দীর্ঘমেয়াদে অৰ্থায়ণ হয়। আর এর মাধ্যমে দেশের জিডিপির পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে বাংলাদেশের শেয়ারবাজারের উন্নয়নে তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে ডিএসইর সহযোগিতা বৃদ্ধি করার বিষয়ে আলোচনা করেন।

একই সঙ্গে তিনি পণ্য এবং প্রযুক্তির উন্নয়ন এবং বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্টকরণ ইত্যাদি বিষয়সমূহ নিয়েও আলোচনা করেন। প্রতিনিধিবৃন্দ বাংলাদেশের শেয়ারবাজারের উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

পরে ডিএসই’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু প্রতিনিধিবৃন্দকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে এবং ‘রূপকল্প ২০৪১’ বাস্তবায়নে সরকারের সম্ভাব্য উন্নয়ন রূপরেখা বাস্তবায়ন করার তথ্য-বিশ্লেষণ এবং সচিত্র দিক নির্দেশনামূলক ‘ওয়াল্ড লিডার শেখ হাসিনা: দ্যা পাইওনিয়ার অফ গ্লোবাল বাংলাদেশ’ নামক নিজের লেখা একটি বই উপহার দেন।

সূত্রঃ শেয়ারনিউজ

ucbl-logo

UCB to invest Tk50cr as sponsor of new mutual fund

An official of the asset manager told The Business Standard that the target size of the upcoming fund would be Tk150 crore.

United Commercial Bank has decided to be the sponsor of an upcoming closed-end mutual fund to be managed by Capitec Asset Management.

As the sponsor of a growth fund to be listed publicly, the private sector lender will invest Tk50 crore, UCB announced in a regulatory disclosure on Tuesday, adding that its board of directors has already approved the decision.

A growth mutual fund focuses on investing in companies with high potential for faster growth, and capital gain-chasing investors tend to prefer such mutual funds over income funds, which invest in high-income generating stocks or bonds.

An official of the asset manager told The Business Standard that the target size of the upcoming fund would be Tk150 crore.

The fund will apply for regulatory flexibility to enable the asset manager to better switch between suitable asset classes – stocks and bonds – to maximise returns for investors, added the official.

For instance, when fixed-income securities like corporate or treasury bonds offer lucrative yields, stocks as an asset class usually face selling pressure. Conversely, when interest rates go down, smart investors tend to switch to stocks over fixed-income assets.

Stiff regulations requiring a minimum exposure to stocks often force mutual funds to absorb capital erosion when the stock market goes through a bearish cycle.

Capitec currently manages four mutual funds – three open-ended mutual funds and one closed-ended fund.

Source: The Business Standard